মুসলমানদের বিরুদ্ধে কটুক্তি সহ্য না করতে পেরে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন আমেরিকান মনোবিজ্ঞানী

0
519

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং তার সমর্থকেরা নির্বাচনী প্রচারণার সময় থেকে মুসলিম ও ইসলাম ভী’তি অনুভূতি প্রকাশ আসছেন। তাদের ইসলাম ভী’তির কারণে দেশটিতে মুসলিমরা বিশেষ করে মুসলিম নারীরা নানা হে’ন’স্তার শিকার হচ্ছেন।

তারপরেও দেশটিতে থেমে নেই ইসলামের জয়যাত্রা। মুসলমান দের বিরুদ্ধে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘৃ’ণাত্ম’ক ভাষা ব্যবহার বরং দেশটিতে ইসলাম ও কোরআন নিয়ে গবেষণা করতে উৎসাহিত করছে এবং পরে তারা ইসলামকেই আঁকড়ে ধরছে।

তেমনই একজন লিসা শানকিন। মুসলমানদের বিরুদ্ধে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘৃ’ণা’ত্মক ব’ক্তৃ’তা এই আমেরিকান নারীকে ইসলামে ধর্মান্তরিত করতে সহায়তা করেছে।

তার ইসলাম গ্রহণ নিয়ে সম্প্রতি তিনি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি পোস্ট দিলে তা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। লিসা শানকিন একজন সাবেক সাইকোথেরাপিস্ট। তিনি মনোবিজ্ঞানের ওপর শার্লট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে গ্রাজুয়েট সম্পন্ন করেন।

তিনি তার ফেসবুকে পেজে লিখেছেন, ট্রাম্পের ঘৃ’ণ্য বাগাড়ম্বরপূর্ণ উক্তি আমাকে একটি বছর আগে কোরআন নিয়ে অধ্যয়ন করতে পরিচালিত করেছে (বিশ্ববিদ্যালয়ে তুলনামূলক ধর্মের অধ্যয়নের সময় যা আমার পড়া হয়নি) এবং ঘনিষ্ঠ ভাবে এটি অধ্যয়ন করছি। শানকিন ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে হিজাব পরা শুরু করেন। এ দিন ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন।

তিনি বলেন, আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে ২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি যে দিন ট্রাম্প শপথ নিবেন; সেই দিন থেকে আমার প্রকাশ্যে হিজাব পরা শুরু হবে। বিশ্বে আমেরিকাতেই সবচেয়ে বেশি ইসলামে ধর্মান্তরের ঘটনা ঘটছে।

মসজিদে কোরআন তিলাওয়াত শুনলেন ব্রিটিশ প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী

লাহোরে একটি মসজিদে বসে কোরআন তিলাওয়াত শুনেছেন যুক্তরাজ্যের ডিউক অব কেমব্রিজ প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী ডাচেস অব কেমব্রিজ কেট মিডলটন।

গত কাল বুধবার পাকিস্তানের সফরের তৃতীয় দিনে লাহরের বাদশাহী মসজিদে বসে কোরআন তিলাওয়াত শোনেন ব্রিটিশ রাজ পরিবারের দুই সদস্য। সম্প্রতি সেই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল।

সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছেন, প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী কেট মিডলটন লাহোরের বাদশাহী মসজিদে যান। সেখান কার ইমাম তাদের স্বাগত জানান। তারপর তাদেরকে মসজিদের ভেতরে নিয়ে যান ইমাম। ভেতরে প্রবেশের সময় মুসলমান নারীদের মতো মাথায় ওড়না জড়িয়ে নিজেকে ঢেকে নেন কেট। এরপর মেঝেতে বসে ইমামের কোরআন তিলওয়াত শোনেন এই ব্রিটিশ রাজ পরিবারের সদস্যরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here